রাত ১২:৫১, বৃহস্পতিবার, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গাড়িতে চড়াই কাল হলো চবির শিক্ষক হতে চাওয়া অভি বড়ুয়ার!

আজকের সারাদেশ প্রতিবেদন:

প্রক্টরিয়াল বডির গাড়ি যাচ্ছেতাই ব্যবহার করে আলোচনায় আসেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবির) সহকারী প্রক্টর অরুপ বড়ুয়া। পারিবারিক কাজ, বাসার বাজার এমনকি ঈদের পর পরিবার নিয়ে ঘুরতে বিশ্ববিদ্যালয়ের গাড়ি ব্যবহার করে সমালোচিত হন তিনি। এরপর যোগ্যতা না থাকা স্বত্ত্বে স্ত্রী অভি বড়ুয়াকে শিক্ষক বানাতে প্রভাব বিস্তার করে নতুন আলোচনার জন্ম দেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার (১৩ জুলাই) আজকের সারাদেশের এক প্রতিবেদনে অরুপ বড়ুয়ার পরিবারের গাড়ি বিলাসের ভিডিও প্রকাশ হলে দেশজুড়ে সমালোচনা ঝড় শুরু হয়। পরদিন শুক্রবার (১৪ জুলাই) অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৪৪তম সিন্ডিকেট সভায় শিক্ষকপত্নী অভি বড়ুয়াকে পালি বিভাগের শিক্ষক পদে নিয়োগের সুপারিশটি বাতিল হয়।

আজকের সারাদেশকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিন্ডিকেট পর্ষদের সদস্য সচিব এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) কে এম নূর আহমদ। তবে এ বিষয়ে তিনি মন্তব্য করতে রাজী হননি। তিনি বলেন, “কয়েক দিনের মধ্যে সিন্ডিকেট সভার কার্যবিবরণী লিখিত আকারে সদস্যদের কাছে পৌঁছে যাবে। সেখানে সভার সবকিছু বিস্তারিত থাকবে।”

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, গত বছর ২৫ জানুয়ারি ও ২৪ আগস্ট পালি বিভাগে প্রভাষক পদে আলাদা দুটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে কর্তৃপক্ষ। দুটিতেই সহকারী প্রক্টরের স্ত্রী অভি বড়ুয়া আবেদন করেছিলেন। তবে তিনি স্নাতকে প্রথম শ্রেণিতে প্রথম না হয়েও আবেদন পত্রে উল্লেখ করেছিলেন, যা সত্য নয়। এছাড়া বিজ্ঞাপনে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে প্রাপ্ত নম্বরের শতকরা হিসাব উল্লেখ করার কথা থাকলেও তিনি তা করেননি। এসব কারণে তাঁর আবেদন বাতিল করে আবেদনপত্র যাচাই-বাছাই কমিটি। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর অভি বড়ুয়া বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে নিজের ভুল স্বীকার করেন।

গত বছরের ৬ নভেম্বর তিনি সংশোধনী আবেদনপত্র জমা দেন। তবে আবেদনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় সে আবেদনপত্র গ্রহণ করেনি নিয়োগের যাচাই বাছাই কমিটি। কমিটির এ সিদ্ধান্তকে উপেক্ষা করে অভি বড়ুয়াকে সাক্ষাৎকারে ডাকে কর্তৃপক্ষ। গত ১৩ মার্চ এ সাক্ষাৎকার নেয় নিয়োগের নির্বাচনী বোর্ড। ওই বোর্ডে পালি বিভাগের সভাপতি শাসনান্দ বড়ুয়ার আপত্তি সত্ত্বেও অভি বড়ুয়াকে সবার আগে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়। ওই সময় সহকারী প্রক্টর অরুপ বড়ুয়ার বিরুদ্ধে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ উঠে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের একজন সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে আজকের সারাদেশকে বলেন, “আবেদনপত্রে ত্রুটিপূর্ণ তথ্য দেওয়া, বিজ্ঞাপনের শর্ত পূরণ না করা ও পালি বিভাগের সভাপতির আপত্তির কারণে অভি বড়ুয়ার নিয়োগের সুপারিশ বাতিল হয়। মূলত গণমাধ্যমের খবর প্রচার হলে বিষয়টি নিয়ে সমালোচনা সৃষ্টি হয়। এরপর বিষয়টি নিয়ে সিন্ডিকেটে জোর সুপারিশ করেননি কেউ।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনবল কাঠামো অনুসারে কোন বিভাগে কতজন শিক্ষক দরকার হবে, তা নির্ধারিত থাকে। শূন্য পদের বিপরীতে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী আবেদনকারীদের তথ্য যাচাই-বাছাইয়ের সুপারিশ করে সংশ্লিষ্ট বিভাগের পরিকল্পনা কমিটি। এরপর এসব তথ্য পাঠানো হয় নিয়োগ বোর্ডে। বোর্ড প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার নেয় এবং নিয়োগের সুপারিশ করে। পরে সিন্ডিকেট সভায় নিয়োগের চূড়ান্ত অনুমোদন হয়।

গত ১২ মার্চ চবির প্রক্টরিয়াল বডির ৬ সদস্যসহ প্রশাসনে দায়িত্বপা্রপ্ত ১৬ জন পদত্যাগ করেছিলেন। মূলত উপাচার্যের সঙ্গে স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বনিবনা না হওয়ার জেরে তারা পদত্যাগ করেন। একই পক্ষের অনুসারী সহকারী প্রক্টর অরুপ বড়ুয়াও পদত্যাগ করার কথা ছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে তিনি পদত্যাগ করেননি। সংশ্লিষ্টরা তখন জানিয়েছিলেন, মূলত স্ত্রীকে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দিতে তিনি পদত্যাগ করেননি। এছাড়া বর্তমান প্রক্টর ড. মোহাম্মদ নুরুল আজিম সিকদারের ব্যাচমেট হওয়ার তিনি প্রক্টরিয়াল বডির অন্যতম নিয়ন্ত্রক হিসেবে কাজ করেন। ‍

আজকের সারাদেশ/১৫ জুলাই ২০২৩/জেএম

সর্বশেষ সংবাদ

প্রথমবারের মতো আন্ডারপাস নির্মাণের উদ্যোগ নিল চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন

কোরবানির বাজার: খাতুনগঞ্জে দেশি পেঁয়াজের রাজত্ব

চট্টগ্রামে বুদ্ধ পূর্ণিমায় মানুষের মুক্তি কামনায় প্রার্থনা

চট্টগ্রাম বোর্ড: সচিবকে আটকাতে কর্মচারীদের ব্যবহার চেয়ারম্যানের!

ফেসবুক খুঁজে দিল ৩০ বছর আগে হারিয়ে ফেলা তিন বান্ধবীকে

ভারতে চিকিৎসা নিতে গিয়ে খুন হলেন বাংলাদেশের এমপি আনোয়ারুল আজিম

‘জীবন বাজি রেখে রাজপথে যথেষ্ট ছিলেন ছাত্রলীগ নেতা হাসানুল করিম মানিক’

তিনটি ফুটবল মাঠের সমান বিশ্বের সবচেয়ে বড় সাবমেরিনের মালিক রাশিয়া

এভারকেয়ার হসপিটাল শিশু হৃদরোগ বিভাগের আয়োজনে ফ্রি হেলথ ক্যাম্প

২ লিটারের বেশি পানি না নিতে নোটিশ দিল চবির শেখ হাসিনা হলের প্রভোস্ট