সকাল ৬:৫৮, শুক্রবার, ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিশ্বকে স্বৈরাচারের জন্য নিরাপদ করছে বেইজিং-মস্কো: মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

বিশ্বকে স্বৈরাচারী শাসকদের জন্য নিরাপদ করতে একযোগে কাজ করছে বেইজিং ও মস্কো। স্থানীয় সময় গতকাল বুধবার ওয়াশিংটনের জন হপকিন্স ইউনিভার্সিটিতে দেওয়া এক ভাষণে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা বলেন। মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রকাশিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

অ্যান্টনি ব্লিংকেন বলেছেন, ‘পুরোনো বিশ্ব ব্যবস্থা বাতিল হয়ে গেছে এবং নতুন বিশ্ব ব্যবস্থা আসন্ন। যুক্তরাষ্ট্রকে অবশ্যই মিত্রদের সঙ্গে নিয়ে নতুন বিশ্ব ব্যবস্থা গঠনে নেতৃত্ব দিতে হবে। পাশাপাশি রাশিয়া এবং চীনের মতো যেসব দেশের কারণে এই ব্যবস্থা বাতিল হয়ে গেছে তাদের হুমকি মোকাবিলায় বিশ্বের জাতিসমূহের মধ্যে আস্থা গড়ে তুলতে হবে।’

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বেইজিং ও মস্কো তাদের সীমাহীন অংশীদারত্বের মাধ্যমে বিশ্বকে স্বৈরাচারের জন্য নিরাপদ করতে একযোগে কাজ করছে।’ তিনি দাবি করেন, রাশিয়া ও চীন বিদ্যমান বিশ্ব ব্যবস্থাকে ‘পশ্চিমা বিশ্বের আরোপিত’ ব্যবস্থা হিসেবে সবার সামনে উপস্থাপন করার চেষ্টা করছে।

তবে সেই বিশ্ব ব্যবস্থা যুক্তরাষ্ট্রের আরোপিত নয় দাবি করে ব্লিংকেন বলেন, ‘সেই বিশ্ব ব্যবস্থা সর্বজনীন মূল্যবোধ থেকে উদ্ভূত এবং তা আন্তর্জাতিক আইনের সাহায্যে চালিয়ে নেওয়া হয়েছে।’

ব্লিংকেন বলেন, ‘একটি যুগের শেষ হয়েছে, এখন আরেকটি যুগের শুরু হচ্ছে। এখন আমাদের আসন্ন দশকগুলোতে সিদ্ধান্ত নিতে হবে কীভাবে আমাদের ভবিষ্যৎ নির্মাণ করব।’ তিনি আরও বলেন, ‘কর্তৃত্ববাদী ক্ষমতার সঙ্গে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার কারণে স্নায়ুযুদ্ধ-পরবর্তী সময়ের তুলনামূলক ভূরাজনৈতিকভাবে স্থিতিশীল বিশ্বব্যবস্থা শেষ হয়েছে।’

ব্লিংকেন দাবি করেন, এসব কর্তৃত্ববাদী দেশ রাশিয়া ও চীনের নেতৃত্বে পরিচালিত হচ্ছে। তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ব্যবস্থার জন্য সবচেয়ে তীব্র হুমকি হিসেবে যেসব ঘটনা ঘটেছে, তার মধ্যে সর্বশেষ উদাহরণটি হলো ইউক্রেন যুদ্ধ।’ এ সময় তিনি দাবি করেন, চীন বিশ্বব্যবস্থার জন্য সবচেয়ে বড় ও দীর্ঘমেয়াদি চ্যালেঞ্জ তৈরি করেছে। কারণ দেশটি আন্তর্জাতিক ব্যবস্থা পুনর্নির্মাণ করতে চায় এবং তা করার জন্য দেশটি অর্থনৈতিক, কূটনৈতিক, সামরিক ও প্রযুক্তিগত শক্তির বিকাশ ঘটাচ্ছে।’

এ সময় মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী পরামর্শ দেন, যুক্তরাষ্ট্রের তার স্বাভাবিক ‘নম্র’ অবস্থানের কারণেই এর বিরুদ্ধে নতুন বিশ্বব্যবস্থা গড়তে নিজের শক্তির জায়গা থেকে নেতৃত্ব দেওয়া উচিত। তিনি বলেন, ‘আমরা জানি আমাদের অনেক দেশের বিপুল পরিমাণ মানুষের আস্থা অর্জন করতে হবে। কারণ এসব মানুষকে দেওয়া অনেক প্রতিশ্রুতিই পুরোনো বিশ্বব্যবস্থা পূরণে ব্যর্থ হয়েছে।’

আজকের সারাদেশ/একে

সর্বশেষ সংবাদ

৫ কোটি টাকার পার্ক কাজে লেগেছে মাত্র ১ দিন, ১২ কোটি টাকায় ফের সংস্কার

বেনজিরের ‘বেনজির’ সম্পত্তি জব্দের নির্দেশ

উপাচার্যের অপসারণের দাবিতে অনড় কুবি শিক্ষক সমিতি

এমপি আজীম হত্যাকাণ্ডে আমাকে ফাঁসানো হচ্ছে: শাহীন

প্রথমবারের মতো আন্ডারপাস নির্মাণের উদ্যোগ নিল চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন

কোরবানির বাজার: খাতুনগঞ্জে দেশি পেঁয়াজের রাজত্ব

চট্টগ্রামে বুদ্ধ পূর্ণিমায় মানুষের মুক্তি কামনায় প্রার্থনা

চট্টগ্রাম বোর্ড: সচিবকে আটকাতে কর্মচারীদের ব্যবহার চেয়ারম্যানের!

ফেসবুক খুঁজে দিল ৩০ বছর আগে হারিয়ে ফেলা তিন বান্ধবীকে

ভারতে চিকিৎসা নিতে গিয়ে খুন হলেন বাংলাদেশের এমপি আনোয়ারুল আজিম