সন্ধ্যা ৬:৫৪, মঙ্গলবার, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে অডিটরকে ঘুষ দিতে নজিরবিহীন অনিয়ম

হাবীব আরাফাত, চট্টগ্রাম

অডিটকে ঘিরে চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডে কর্মকর্তা কর্মচারীদের কাছ থেকে চাঁদা আদায়ের অভিযোগ দীর্ঘদিনের। সেই চাঁদার কিছু অংশ অডিটরদের আপ্যায়ন, কিছু অংশ উৎকোচ হিসেবে খরচ ও বাকী অংশ উর্ধতন কর্মকর্তারা ভাগাভাগি করতেন। গেলো কয়েকবছরও তার ব্যত্যয় ঘটেনি। তবে এবার অডিট আপত্তি সমন্বয়ের নামে অডিটরকে ঘুষ দিতে নজিরবিহীন অনিয়মের আশ্রয় নিয়েছে বোর্ড কর্মকর্তারা।

ঢাকায় পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরকে ঘুষ দিতে  চতুর্থ শ্রেণির এক কর্মচারীর নামে বোর্ডের হিসাব শাখা থেকে উত্তোলনের জন্য দেড় লাখ টাকার একটি চেক ইস্যু করা হয়েছে। চেকটি নগদায়নের পর ৩ কর্মকর্তা-কর্মচারীর একটি দল ঢাকায় গেছে রোববার। সেখানে অডিট আপত্তি সমন্বয়ের নামে বোর্ডের ফান্ড থেকে উত্তোলন করা টাকার কিছু অংশ ঘুষ হিসেবে পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের হস্তান্তরের কথা রয়েছে।

একের পর এক নানা অভিযোগের মধ্যে এবার এই নজিরবিহীন অনিয়মের ঘটনা ঘটল চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডে।

অনুসন্ধানে জানা যায়, ১৯৯৫ সালে চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড হিসেবে কার্যক্রম শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত নিয়োগ, কর্মকর্তা কর্মচারীদের পদোন্নতি, বেতন বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন বিষয়ে বোর্ডের জ্ঞাত ৯০ টি অডিট আপত্তি রয়েছে। তবে পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের দাবি চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে অডিট আপত্তি রয়েছে ১২৫ টি ৷ এই বিষয়টি সমন্বয় করতেই সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের উৎকোচের মাধ্যমে খুশি করার সিদ্ধান্ত নেয় বোর্ডের দায়িত্বশীলরা। এ নিয়ে গত মঙ্গলবার (১২ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী মো. আশরাফুল আলমের নামে একটি চেক ইস্যু করা হয়। ৬৯৪৪৭৮৯ নম্বরের ওই চেকে রিকনসিলিয়েশন (সমন্বয়) খাত দেখানো হয়েছে।

এই চেক নগদায়নের পর রোববার বোর্ডের উপপরিচালক প্রফেসর মোহাম্মদ এমদাদ হোসাইন, সহ-হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা ওসমান গনি, চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী আশরাফুল আলম ও অডিট কর্মকর্তা লোকমান হোসেনের ঢাকায় যাওয়ার কথা ছিল। তবে বিষয়টি গণমাধ্যম পর্যন্ত চলে আসায় বোর্ডের উপপরিচালক প্রফেসর মোহাম্মদ এমদাদ হোসাইন ঢাকা যাওয়া স্থগিত করে বাকী তিন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে পাঠান।

বোর্ডের একজন চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীর নামে চেক ইস্যু হওয়ার বিষয়ে হিসাব ও নিরীক্ষা শাখার উপ-পরিচালক অধ্যাপক মোহাম্মদ এমদাদ হোসাইন বলেন, ‘আমি এই বিষয়ে মন্তব্য করার জন্য যথাযথ ব্যক্তি না। এটা নিয়ে চেয়ারম্যান স্যার বা সচিব স্যারের সঙ্গে কথা বলতে হবে।’

তবে চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী আশরাফুল আলমের নামে ইস্যু করা চেকের অর্থ নিয়ে রোববার ঢাকা যাওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন তিনি।

নিজের নামে চেক ইস্যু, তা নগদায়ন ও ঢাকায় যাওয়ার কথা স্বীকার করেন কর্মচারী আশরাফুল আলম। তিনি বলেন, ‘চেক কার নামে হলো তা কোনো বিষয় না। মূলত দায়িত্ব অনুযায়ী কাজ করতে হয়। সবকিছু চেয়ারম্যান আর সচিব স্যারের নির্দেশে হয়। আমরা শুধু দায়িত্ব পালন করি। আমরা ঢাকায় এসেছি, সেটাও স্যারদের নির্দেশে।’

তবে অডিট কর্মকর্তা লোকমান হোসেন বলেন, ‘আমরা মূলত একটা মিটিংয়ে এসেছি। বোর্ডের কার্যক্রম শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত বেশ কিছু অডিট আপত্তি রয়েছে।  অধিদপ্তরে কী আছে আর বোর্ডে কী আছে তা সমন্বয়ের জন্যই আমরা ঢাকায় এসেছি। এগুলো এখন ডিজিটাইজ হবে।‘

‘আমাদের সঙ্গে ডিডি স্যার (উপপরিচালক এমদাদ) আসার কথা, কিন্তু ওনি আসেননি। এতগুলো কাজ এক করা আমার পক্ষে কঠিন, তাই আমার সঙ্গে সহকারী হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা ওসমান সাহেব এসেছেন। তাছাড়া কাগজপত্র বেশি হওয়ায় তা বহনের জন্য আশরাফুল আলমকে আনা হয়েছে।’

বোর্ডের হিসাব শাখা থেকে চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী আশরাফুল আলমের নামে চেক ইস্যুর মাধ্যমে উত্তোলন করা অর্থ মিটিংয়ে এলাউন্স (ভাতা) হিসেবে খরচ করা হবে বলে জানান তিনি।

বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের সচিব অধ্যাপক রেজাউল করিম শুরুতে রিকনসিলিয়েশন বাবদ চেক ইস্যুর বিষয়টি স্বীকার করলেও কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানান। এই বিষয়ে শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মুস্তফা কামরুল আখতারের সঙ্গে কথা বলার পরামর্শ দেন তিনি।

বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মুস্তফা কামরুল আখতারের সঙ্গে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ চেষ্টা করে সাড়া পাওয়া যায়নি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হোয়াটসঅ্যাপে খুদে বার্তা পাঠিয়েও তাঁর কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

আজকের সারাদেশ/১৮সেপ্টেম্বর/এএইচ

সর্বশেষ সংবাদ

২ লিটারের বেশি পানি না নিতে নোটিশ দিল চবির শেখ হাসিনা হলের প্রভোস্ট

উপজেলা নির্বাচন: হাটহাজারিতে ২ পক্ষের সংঘর্ষ

২৬ মে আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’, ব্যাপক বৃষ্টিপাতের শঙ্কা

ইসরায়েলের যুদ্ধ সরঞ্জাম বহনকারী জাহাজ বন্দরে ভিড়তে দেয়নি স্পেন

রাইসিকে ‘তেহরানের জল্লাদ’ বললেন ইহুদি নেতা, উচ্ছ্বাসের ঝড়

শাহ আমানত বিমানবন্দরে তথ্য কর্ণার চালু

শততম জাহাজে উড়তে যাচ্ছে লাল-সবুজের পতাকা

রাইসিসহ বিধ্বস্ত হেলিকপ্টারটি যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি

ইরানের অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মোখবার

ইরানের প্রেসিডেন্টকে বহনকারী হেলিকপ্টারের কারও বেঁচে থাকার সম্ভাবনা নেই!