রাত ৮:২৯, মঙ্গলবার, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডিভোর্স লেটার পেয়ে রাজ বললেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ’

আজকের সারাদেশ ডেস্ক:

ঢাকাই সিনেমার চিত্রনায়িকা পরীমণির পাঠানো ডিভোর্স লেটার হাতে পেয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন অভিনেতা স্বামী শরিফুল রাজ। পরীর এই সিদ্ধান্তকে সম্মান জানিয়ে রাজ বলেছেন, আমার প্রাক্তনের পাঠানো চিঠি (ডিভোর্স লেটার) হাতে পেয়েছি। আলহামদুলিল্লাহ! তার এই সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাচ্ছি।

এসময় সন্তান রাজ্যর জন্য পরীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন রাজ। তিনি বলেন, ‘তাকে ধন্যবাদ দিতে চাই আমাকে আমার জীবনের সেরা অর্জন রাজ্যকে উপহার দেওয়ার জন্য।’

বিচ্ছেদের পর ভক্তদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে রাজ বলেন, ‘আমার শুভাকাঙ্ক্ষীদের কাছে অনুরোধ, আমার বাচ্চার মায়ের অসম্মান হয় এমন কোন কাজ থেকে বিরত থাকবেন আশা করি। একই সঙ্গে আগামীতে আমার ব্যক্তিগত জীবন একান্তই আমার থাকবে, সেই চেষ্টায় আপনাদের সহযোগিতা আশা করছি। ’

গত ১৮ সেপ্টেম্বর রাজকে ডিভোর্স লেটার পাঠান পরীমণি।। তালাকনামায় এই নায়িকা চারটি কারণ উল্লেখ করেছেন। সেগুলো হলো―মনের অমিল হওয়া, বনিবনা না হওয়া, খোঁজখবর না নেওয়া ও মানসিক অশান্তি। মূলত এই চার কারণ উল্লেখ করেই পরীমনি রাজ বরাবর তালাকনামা পাঠিয়েছেন।

পরীমণি বিচ্ছেদের জন্য যে কারণগুলো দায়ী করেছেন সেসবই সত্যি বলে মন্তব্য করেছেন রাজ। তিনি বলেন, ‘পরী যা যা বলেছে সবই সঠিক। পুরোপুরি সত্য। আমি সবকিছু মেনে নিয়েছি।’

প্রসঙ্গত ২০২১ সালের ১৭ অক্টোবর বিয়ে করেন চিত্রনায়িকা পরীমণি ও চিত্রনায়ক শরিফুল রাজ। তবে পারিবারিকভাবে ২০২২ সালের ২২ জানুয়ারি ঘরোয়াভাবে আবার তাদের বিয়ে হয়। ২০২২ সালের ১০ আগস্ট তাদের ছেলে শাহীম মুহাম্মদ রাজ্যের জন্ম হয়। এর এক বছর পরই আলাদা হয়ে গেল এই দম্পতি।

আজকের সারাদেশ/এসএম

সর্বশেষ সংবাদ

তিনটি ফুটবল মাঠের সমান বিশ্বের সবচেয়ে বড় সাবমেরিনের মালিক রাশিয়া

এভারকেয়ার হসপিটাল শিশু হৃদরোগ বিভাগের আয়োজনে ফ্রি হেলথ ক্যাম্প

২ লিটারের বেশি পানি না নিতে নোটিশ দিল চবির শেখ হাসিনা হলের প্রভোস্ট

উপজেলা নির্বাচন: হাটহাজারিতে ২ পক্ষের সংঘর্ষ

২৬ মে আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’, ব্যাপক বৃষ্টিপাতের শঙ্কা

ইসরায়েলের যুদ্ধ সরঞ্জাম বহনকারী জাহাজ বন্দরে ভিড়তে দেয়নি স্পেন

রাইসিকে ‘তেহরানের জল্লাদ’ বললেন ইহুদি নেতা, উচ্ছ্বাসের ঝড়

শাহ আমানত বিমানবন্দরে তথ্য কর্ণার চালু

শততম জাহাজে উড়তে যাচ্ছে লাল-সবুজের পতাকা

রাইসিসহ বিধ্বস্ত হেলিকপ্টারটি যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি