রাত ১২:০৪, মঙ্গলবার, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘মহিউদ্দিনপন্থী বাচ্চুর’ জন্য ভোট চাইতে মাঠে নামলেন আ জ ম নাছির

আজকের সারাদেশ প্রতিবেদন:


প্রায় তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগে দুটি ধারা বিদ্যমান। এর একটির নেতৃত্বে ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রয়াত মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী। মহানগর আওয়ামী লীগের এই সাবেক সভাপতির মৃত্যুর পর অনুসারীরা তাঁর ছেলে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের পেছনে রাজনীতি করছেন। অন্য ধারাটির নেতৃত্বে আছেন আরেক সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। দুটি পক্ষের মধ্যে প্রায় সময় বিবেধ দেখা যায়। কর্মসূচি পালনের ক্ষেত্রেও দুটি পক্ষ পৃথকভাবে আয়োজন করে।

চট্টগ্রাম-১০ আসনে নৌকার প্রার্থী মহিউদ্দিন বাচ্চু মহিউদ্দিন চৌধুরীর অনুসারী হিসেবে চট্টগ্রামের রাজনীতিতে পরিচত। এতবছর ধরে তিনি মহিউদ্দিন চৌধুরী পক্ষের হয়ে নানা কর্মসূচি পালন করেছেন। সেই মহিউদ্দিনপন্থী বাচ্চুর জন্য এবার ভোট চাইলেন আ জ ম নাছির উদ্দীন। সোমবার (১ জানুয়ারি) নগরীর রামপুরার রূপসা বেকারির সমানে বাচ্চুর হয়ে গণসংযোগ করেন মহানগর আওয়ামী লীগের এ সাধারণ সম্পাদক।

এ সময় আ জ ম নাছির বলেন, ‘এখনই সময় এসেছে ঘরে ঘরে আওয়ামী লীগ সরকারের অর্জন ও সাফল্যগুলো পৌঁছে দেওয়ার। কেন্দ্রে যাতে শান্তি শৃঙ্খলা বজাই থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। বিএনপি জামাত নির্বাচনে না এলেও আরো নিবন্ধনকৃত দল, যারা অংশগ্রহণ করেছেন তাদেরকে আমরা স্বাগত জানাই। মনে রাখতে হবে ২০২৪ এর নির্বাচন আমাদের চ্যালেঞ্জিং।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নৌকার প্রার্থী মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বাচ্চুও। তিনি বলেন, আমি জনগণের ভালোবাসা নিয়ে নৌকা প্রতীক পেয়েছি। যদি নির্বাচিত হই এই ভালোবাসার প্রতিদান দেব। আমি আপনাদের সমস্যাগুলো জানি, তা সমাধানে যেখানেই আমাকে যেতে হয় আমি সেখানেই যাব।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন আ জ ম নাছির উদ্দিন। তিনি চট্টগ্রামের তিনটি আসন থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছিলেন। এর মধ্যে ছিল চট্টগ্রাম-১০ আসনটিও। কিন্তু এক আসন থেকেও তিনি দলীয় মনোনয়ন পাননি। তবে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হননি।

চট্টগ্রাম-১০ আসনে বাচ্চুর পাশাপাশি আওয়ামী লীগের আরও দুই নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। তাঁরা হলেন সাবেক মোহাম্মদ মনজুর আলম ও ফরিদ মাহমুদ। নগরের রাজনীতিতে এই দুই নেতাও মহিউদ্দিনপন্থী হিসেবে পরিচিত। একই বলয়ের তিনজন প্রার্থী হয়ে যাওয়ায় এই আসনে কাউকে প্রকাশ্যে সমর্থন দিতে দেখা যায়নি নওফেলকে। তবে প্রচার আছে মহিউদ্দিন পক্ষের অনুসারীরা মনজুর আলমের হয়ে কাজ করছেন আর বাচ্চুও নাছির বলয়ের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়িয়েছেন। এই আলোচনার মধ্যেই আ জ ম নাছির নৌকার প্রার্থী বাচ্চুর হয়ে জনসংযোগ করার পর সেই দাবি যেন আরও জোরাল হলো।

বাচ্চুর হয়ে জনংযোগে আরও উপস্থিত ছিরেন মহানগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য এ.কে.এম বেলায়েত হোসেন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং চট্টগ্রাম ১০ নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্যসচিব শফিকুল ইসলাম ফারুক, সাবেক যুবলীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন খোকা, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা তারেক মাহমুদ পাপ্পু, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক আবুল কাশেম, যুগ্ম আহ্বায়ক দিলদার খান দিলু, এরশাদ উল্লাহ প্রমুখ।

আজকের সারাদেশ/একে