সকাল ৬:৩৫, শুক্রবার, ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাণিজ্য নগরীর সংকট মোকাবিলায় ট্রেড বডিগুলোকে ভূমিকা রাখতে হবে

আজকের সারাদেশ প্রতিবেদন:
বাণিজ্য নগরী চট্টগ্রামের বিভিন্ন সংকট মোকাবিলায় ট্রেড বডিগুলোকে জোরালো ভূমিকা রাখতে হবে। চিটাগং লাইভ- এর আয়োজনে এনডব্লিওসি এডুকেশন  “বাণিজ্যে তারুণ্য- কতোটা সচল অর্থনীতির হৃৎপিণ্ড চট্টগ্রাম’ শীর্ষক এক গোল টেবিল আলোচনায় তরুণ উদ্যোক্তাসহ অংশীজনরা এই মন্তব্য করেন।

সম্প্রতি নগরীর রেডিসন ব্লু বে ভিউ হোটেলের কনফারেন্স হলে এ গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৈঠকে আলোচকরা বলেন, ‘বাণিজ্য নগরী’ বলা হলেও চট্টগ্রামে ব্যবসার জন্য যেসব সুযোগ-সুবিধা থাকার কথা তা দিন দিন কমে যাচ্ছে।

এক সময় দেশের ইস্পাত শিল্প ছিল চট্টগ্রাম কেন্দ্রিক। যেখানে ছোট-বড় অর্ধ শতাধিক ইস্পাত কারখানা ছিল। কিন্তু এখন তা কমতে কমতে ১০টির নিচে নেমে এসেছে। শিপব্রেকিং ইয়ার্ডেরও দুরাবস্থা। এক সময় ১৬০ টি ইয়ার্ডে কার্য়ক্রম চলতে তা নেমে এসেছে ২০-২২ টিতে।

চট্টগ্রাম থেকে পোষাক রপ্তানি শুরু হলেও তা এখন চট্টগ্রামের হাতে নেই। ২২ টি চামড়া কারখানার মধ্যে টিকে আছে মাত্র একটি।

দীর্ঘদিন ভোগ্যপণ্যের একচেটিয়া ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ হতো খাতুনগঞ্জ থেকে। তা এখন ঢাকার মৌলভিবাজার ও নারায়নগঞ্জে স্থানান্তরিত হয়ে যাচ্ছে।

ঢাকা-চট্টগ্রামের মহাসড়কের সীতাকুন্ডে ওভার লোড নিয়ন্ত্রণের নামে ওজন স্কেল চট্টগ্রামের বাণিজ্যে বড় ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কারণ ওজন স্কেলের কারণে চট্টগ্রাম থেকে দেশের অন্য জেলাগুলোতে ৮ টনের বেশি পণ্য পরিবহন করা যাচ্ছে না। অথচ ঢাকা কিংবা অন্য বাণিজ্যিক এলাকা থেকে ২০-২৪ টন পণ্য নিয়ে গাড়ি চলাচল করছে। এতে চট্টগ্রাম থেকে দেশের অন্য জেলাগুলোতে পণ্য পরিবহন খরচ বেড়ে যাওয়ায় ব্যবসায়ীরা চট্টগ্রাম বিমুখ হচ্ছে।

অংশীজনরা আরো বলেন, তরুণ উদ্যোক্তা তৈরিতে সরকারের পক্ষ থেকে জোর দেয়া হলেও বাস্তবে ব্যাংক ঋণ সহ বিভিন্ন সেবা পেতে চট্টগ্রামের উদ্যোক্তাদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। যা ঢাকার উদ্যেক্তাদের জন্য তুলনামূলক সহজ।

আলোচকরা বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশের কথা বলা হলেও এখনো চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীদের দাপ্তরিক কাজের জন্য প্রতিদিন ঢাকায় ধরণা দিতে হয়। বাণিজ্য নগরীর এসব সমস্যা সমাধানে চট্টগ্রামের জন প্রতিনিধি ও ট্রেড বডিগুলোকে একসাথে কাজ করতে হবে।

গোল টেবিল বৈঠকের মডারেটরের দায়িত্ব পালন করেন র‍্যানকন রিয়েল এস্টেট এন্ড সি ফিশিং এর সিইও তানভির শাহরিয়ার রিমন। সূচনা বক্তব্য দেন চিটাগং লাইভের প্রতিষ্ঠাতা সাবের শাহ।

গোল টেবিল বৈঠকে বাণিজ্য নগরী হিসেবে চট্টগ্রামের সমস্যা-সম্ভাবনার কথা তুলে ধরেন এসপেরিয়া হেলথ কেয়ার লিমিটেডের চেয়ারম্যান গোলাম বাকি মাসুদ, এনজিএস সিমেন্ট ইন্ডাস্ট্রিজের পরিচালক অভিমন্যু সাহা, সাউথ ইস্ট ব্যাংকের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট রাশেদুল আমিন, খুলশি টাউন সেন্টারের সভাপতি সৈয়দ জালাল আহমেদ রুম্মান, মেন্টরস চিটাগং এর পরিচালক মানজুমা মোরশেদ, দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড এর সিনিয়র স্টাফ করেসপন্ডেন্ট ওমর ফারুক, জেসিআই বাংলাদেশের রিজিউনাল ভাইস প্রেসিডেন্ট শান শাহেদ, জুনিয়র চেম্বার ইন্টারন্যাশনাল চিটাগং এর এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ইশতিয়াক আলম চৌধুরী, খুলশী কনভেনশন হলের প্রধান নির্বাহী কাজী জয়নাল, স্টার্ট আপ চট্টগ্রাম এর ফাউন্ডার আরফাতুল ইসলাম আকিব এবং এনডব্লিউসি চট্টগ্রাম ব্রাঞ্চ ম্যানেজার মুরাদ শামসুল আলম খান।

চট্টগ্রামের শিক্ষা, সংস্কৃতি, ইতিহাস ও তথ্যনির্ভর ডিজিটাল প্লাটফর্ম চিটাগাং লাইভ এর আয়োজনে পাওয়ার্ড বাই স্পন্সর ছিল জিসিই চিটাগং.

আজকের সারাদেশ/এমএইচ

সর্বশেষ সংবাদ

৫ কোটি টাকার পার্ক কাজে লেগেছে মাত্র ১ দিন, ১২ কোটি টাকায় ফের সংস্কার

বেনজিরের ‘বেনজির’ সম্পত্তি জব্দের নির্দেশ

উপাচার্যের অপসারণের দাবিতে অনড় কুবি শিক্ষক সমিতি

এমপি আজীম হত্যাকাণ্ডে আমাকে ফাঁসানো হচ্ছে: শাহীন

প্রথমবারের মতো আন্ডারপাস নির্মাণের উদ্যোগ নিল চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন

কোরবানির বাজার: খাতুনগঞ্জে দেশি পেঁয়াজের রাজত্ব

চট্টগ্রামে বুদ্ধ পূর্ণিমায় মানুষের মুক্তি কামনায় প্রার্থনা

চট্টগ্রাম বোর্ড: সচিবকে আটকাতে কর্মচারীদের ব্যবহার চেয়ারম্যানের!

ফেসবুক খুঁজে দিল ৩০ বছর আগে হারিয়ে ফেলা তিন বান্ধবীকে

ভারতে চিকিৎসা নিতে গিয়ে খুন হলেন বাংলাদেশের এমপি আনোয়ারুল আজিম