রাত ৮:২৬, মঙ্গলবার, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রাম বইমেলায় শুয়ে বসে বই পড়ার সুযোগ

আজকের সারাদেশ প্রতিবেদন:
নগরীর শিরীষতলায় মূল বইমেলায় প্রবেশ করে বাঁ পাশ ধরে এগুতেই প্রথম সারিতে বিশেষ দৃষ্টি কাড়বে একটি স্টল। এই স্টলের নামফলকের বাঁ পাশে বড় করে লেখা ‘বিক্রিত বই ফেরত নেওয়া হয়’। এর ঠিক উল্টোদিকে লেখা ‘পড়াকেন্দ্র’। ব্যতিক্রম এসব লেখার কারণ জেনে অনেকটা অবাকই হতে হলো। এই স্টল থেকে বই কিনে পড়া শেষে আবার ফেরতও দেওয়া যায়। এমনকি ভেতরে দুপাশে তৈরি করা হয়েছে মাচাংয়ের বিছানা। স্টলের সামনে সাজিয়ে রাখা বই নিয়ে মাচাংয়ে শুয়ে বসে পড়া যায় আরামে আয়েসে।

মেলায় এমন অবাক করা কান্ড আগে কখনো চোখে পড়েনি কারো। তাই স্টলটির সামনে উৎসুক দর্শনাথীর ভিড়। এমন ভিড়ের অবশ্য অন্য কারণও আছে। পরিবেশের সহায়ক নানা উপাদান দিয়ে তৈরি স্টলটি দেখতে বেশ নান্দনিক। বাঁশের তৈরি নানা নকশার বেডা দিয়ে সাজানো, সঙ্গে রয়েছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যের কুলা-চালুনি।

ইট পাথরের জঞ্জালে ভরা নগরে সিআরবি যেন এক টুকরো সবুজ প্রাণ। সেখানকার শিরীষতল মাঠেই এবার বই মেলার আয়োজন করেছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। তাই মেলায় সিআরবির প্রাণ প্রকৃতির সঙ্গে সঙ্গতি রাখতেই এভাবে স্টলটি সাজানোর উদ্যোগ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বিদ্যানন্দের।

সম্প্রতি এই স্টলে গিয়ে কথা হয় বিদ্যানন্দের স্বেচ্ছাসেবক মো. ফারুকের সঙ্গে। তিনি জানান, এবার বিদ্যানন্দ প্রকাশনী প্রায় ২০ টি নতুন বই প্রকাশ করেছে। এরমধ্যে বেশিরভাগ বই বিদ্যানন্দের বিভিন্ন কার্যক্রমে সুবিধাভোগী দুস্থ অসহায় মানুষের জীবনের গল্পের অনুলিখন। দেশের প্রখ্যাত শিশুসাহিত্যিকদের লেখা শিশুতোষ বইও আছে কিছু। এসব বই কেনার পর পাঠ শেষে পাঠকরা চাইলে পুনরায় ফেরত দিতে পারবেন। বই ফেরত দিলে ফেরত পাওয়া যাবে বইয়ের ৮৫ শতাংশ মূল্য। বাকী ১৫ শতাংশ রাখা হয় লেখক সম্মানী হিসেবে।

পড়াকেন্দ্র নিয়ে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের সদস্য জামাল উদ্দিন জানান, ইদানিং বইমেলা নিয়ে অনেক আলোচনা হলেও পাঠকের সংখ্যা কমছে দিনদিন। অনেকে বই নাড়াচাড়া করে সেলফি তুলেই চলে যান। আবার কেউ কেউ বই কিনে বাসায় নিয়ে গেলেও সময়-সুযোগের অভাবে পড়া হয়ে উঠে না। নতুন বই দেখেই অনেকের পড়ার আগ্রহ জাগে, কিন্তু পুরো মেলাটি বই নিয়ে হলেও পড়ার মত কোনো স্থান নেই। তাই বাঁশের মাচাংয়ে বিছানা সাজিয়ে পড়কেন্দ্র তৈরি করেছে বিদ্যানন্দ। পড়াকেন্দ্রে ছেলে মেয়ের জন্য রাখা হয়েছে আলাদা স্থান। সেখানে মাত্র ২০ টাকা ফি জমা দিয়ে যে কেউ স্টলের যে কোনো বই পড়তে পারবেন।

মেলায় ঘুরতে স্টলে শুয়ে-বসে বই পড়ার এমন সুযোগ দেখে অবাক চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী পায়েল হওলাদার। তিনি পূর্বকোণকে বলেন, এখন পর্যন্ত বেশ কয়েকটা বই মেলায় গিয়েছি। কিন্তু কখনো এমন ব্যতিক্রম বিষয় চোখে পড়েনি। এই উদ্যোগটা দারুণ লেগেছে।

এই স্টলে কথা হয় বিদ্যানন্দের আরেক স্বেচ্ছাসেবক কণিতা চাকমার সঙ্গে। কলেজ শিক্ষার্থী কণিতা জানান, মেলায় বিদ্যানন্দ প্রকাশনীর বিলুুপ্ত প্রায় ক্ষুদ্র-নৃগোষ্টির পৃথক চারটা ভাষায় লেখা গল্পের বইও রয়েছে। অবশ্য এসব বইয়ে গল্পগুলোর অনুবাদও রয়েছে। তরুণ পাঠক ও গবেষকরা এসব বইয়ের প্রধান ক্রেতা।

মেলায় এমন আরেকটি ব্যতিক্রমি স্টল সাজিয়েছে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের নিয়ে কাজ করা প্রতিষ্ঠান নিষ্পাপ অটিজন ফাউন্ডেশন। বইয়ের মেলা হওয়ায় আশেপাশের অন্যসব স্টল বই দিয়ে সাজানো হলেও এটি সাজানো হাতের তৈরি নানা সামগ্রী দিয়ে। স্টলের সামনের টেবিলে সাজানো রয়েছে পুঁথির মালা, ক্রিস্টাল পাথরের কলমদানি, ফলের ঝুড়ি, ফুলের শোপিস, পুঁথির তৈরি টিস্যুর বাক্স, হাতে তৈরি রিং, পেন্সিল বাক্স, পবিত্র মক্কা শরীফের রেপ্লিকা, চাবির রিং, কানের দোল, চুড়ি, পুঁথির তৈরি ব্যাগসহ নানা সামগ্রী। শুধু তাই নয়, স্টলের সামনেই সাঠানো রয়েছে কিছু চিত্রকর্ম, পাশেই রাখা হাতের কারুকাজ করা কিছু শাড়ি। বইয়ের মেলায় এসব সামগ্রী দেখে কিছুটা অবাকই হতে হলো। এর কারণ জানতে কথা হয় স্টলের দায়িত্বে থাকা নিষ্পাপ অটিজন ফাউন্ডেশনের জ্যেষ্ঠ শিক্ষক দীপা চন্দের সঙ্গে। তিনি বলেন, আমাদের উদ্দেশ্য হল মানুষকে জানানো যে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন বাচ্চাদের যদি প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়, তাহলে ওরা সবকিছু করতে পারে। মূলত তাদের পরিচর্যা করাটাই গুরুত্বপূর্ণ। পরিচর্যা পেলে ওরাও স্বাবলম্বী হতে পারে। এই স্টলটা মূলত দেওয়া হয়েছে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য। এখানে সব জিনিস তাদের হাতে তৈরি।

এবার চট্টগ্রাম অমর একুশে বইমেলা শুরু হয়েছে গেল ৯ ফেব্রæয়ারি। মেলা চলবে আগামী ৩ মার্চ পর্যন্ত। এবারের মেলায় অংশগ্রহণ করেছে চট্টগ্রাম, ঢাকা ও সিলেটের ৯৫ টি প্রকাশনা সংস্থা । ১৫৫ টি স্টলে চলছে বই প্রদর্শনী ও বিক্রি। প্রতিদিন বিকেল ৩ টায় মেলা শুরু হয়ে চলে রাত ৯ টা পর্যন্ত। তবে সপ্তাহিক ছুটিরদিন শুক্র ও শনিবার মেলা শুরু হয় সকাল ১১ টায়।

আজকের সারাদেশ/এএইচ

সর্বশেষ সংবাদ

তিনটি ফুটবল মাঠের সমান বিশ্বের সবচেয়ে বড় সাবমেরিনের মালিক রাশিয়া

এভারকেয়ার হসপিটাল শিশু হৃদরোগ বিভাগের আয়োজনে ফ্রি হেলথ ক্যাম্প

২ লিটারের বেশি পানি না নিতে নোটিশ দিল চবির শেখ হাসিনা হলের প্রভোস্ট

উপজেলা নির্বাচন: হাটহাজারিতে ২ পক্ষের সংঘর্ষ

২৬ মে আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’, ব্যাপক বৃষ্টিপাতের শঙ্কা

ইসরায়েলের যুদ্ধ সরঞ্জাম বহনকারী জাহাজ বন্দরে ভিড়তে দেয়নি স্পেন

রাইসিকে ‘তেহরানের জল্লাদ’ বললেন ইহুদি নেতা, উচ্ছ্বাসের ঝড়

শাহ আমানত বিমানবন্দরে তথ্য কর্ণার চালু

শততম জাহাজে উড়তে যাচ্ছে লাল-সবুজের পতাকা

রাইসিসহ বিধ্বস্ত হেলিকপ্টারটি যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি