রাত ১:৪২, মঙ্গলবার, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শান্তর রিভিউ নিয়ে কলকাতা পুলিশের ট্রল

আজকের সারাদেশ প্রতিবেদন:

ভুল রিভিউ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে হাস্যরসের শিকার হওয়ার পর এবার নাজমুল হোসেন শান্তকে নিয়ে বিজ্ঞাপন প্রচার করেছে কলকাতা পুলিশ। রসাত্মক সেই বিজ্ঞাপনে লোভনীয় লিঙ্কের সাথে তুলনা করা হয়েছে বাংলাদেশের নেওয়া রিভিউকে। এদিকে উইজডেন ক্রিকেট শান্তর নেওয়া এই রিভিউকে অল টাইম গ্রেট রিভিউ ফেইল বলে আখ্যায়িত করেছে।

চট্টগ্রামে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিনে দেখা মেলে বাংলাদেশের হাস্যকর এই রিভিউয়ের। শ্রীলঙ্কার ইনিংসের ৪৪তম ওভারের খেলা চলছিল, স্বাগতিকরা ততক্ষণে তুলে নিতে পেরেছে মাত্র একটি উইকেট। দিমুথ করুনারত্নে ও কুশল মেন্ডিসের জুটি ভাঙতে যখন বাংলাদেশ মরিয়া, তখন তাইজুল ইসলামের একটি ডেলিভারি ডিফেন্স করেন ২৯ রানে অপরাজিত কুশল। বল পায়ে লেগেছে ভেবে স্লিপে দাঁড়িয়ে ফিল্ডিং করা অধিনায়ক শান্ত আম্পায়ারের কাছে এলবিডব্লিউর আবেদন করেন।

স্বাভাবিকভাবেই আম্পায়ার আবেদন নাকচ করে দিলে শান্ত রিভিউয়ের আশ্রয় নেন। অথচ বোলার তাইজুল বা উইকেটরক্ষক লিটন দাস কেউই ইতিবাচক সাড়া দেননি। রড টাকার সিদ্ধান্তের দায়ভার পাঠান থার্ড আম্পায়ার ক্রিস গ্যাফানিকে। পর্যালোচনা করতে গিয়ে গ্যাফানিকে আল্টা এজের আশ্রয়ও নিতে হয়নি, কারণ রিপ্লেতে স্পষ্টভাবে বোঝা যাচ্ছিল বল লেগেছে ব্যাটের ঠিক মাঝখানে, এমনকি সামনের পা ছিল অনেক দূরে। তাতে রিভিউ তো হারানই, সাথে ট্রলের শিকারও হন শান্ত।

শান্তর সেই রিভিউ নিয়ে কলকাতা পুলিশ বানিয়েছে বিজ্ঞাপন। শান্তর রিভিউ নেওয়া লোভনীয় লিঙ্কে ক্লিক আর রিভিউ হারানোকে কর্মফল হিসেবে দেখানো হয়েছে একটি পোস্টে। উইজডেন তাদের আর্টিকেলের শিরোনামে লিখেছে, ‘ওহ ডিয়ার! বাংলাদেশ বিজারলি অপ্ট ফর ডিআরএস এলবিডব্লিউ রিভিউ ডিসপাইট ব্যাটার মিডলিং বল।’ সেখানে হাস্যকর রিভিউয়ের কারণে শান্তর ট্রলের শিকার হওয়ার বিভিন্ন নজির তুলে ধরা হয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে।

আজকের সারাদেশ/একে