রাত ১২:২৬, মঙ্গলবার, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইউটিউবের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন বাংলাদেশি প্রকৌশলী!

আজকের সারাদেশ প্রতিবেদন: 

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম ইউটিউবের প্রতিষ্ঠা করেন জাভেদ করিম, চ্যাড হারলি এবং স্টিভ চেন। তাদের মধ্যে সহ প্রতিষ্ঠাতা জাভেদ করিম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত। প্ল্যাটফর্মে প্রথম ভিডিও আপলোডকারী ব্যক্তিও তিনি। 

তিন সাবেক পেপাল কর্মচারীর হাত ধরে ২০০৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে প্লাটফর্মটি প্রতিষ্ঠা পায়। পরে গুগল ২০০৬ সালে ১৬৫ কোটি ডলারে তাদের কাছ থেকে ইউটিউব কিনে নেয়।

দ্য আটলান্টিকের তথ্য অনুযায়ী, প্রতিষ্ঠার পর থেকে এখন পর্যন্ত ১৪ বিলিয়ন ভিডিও  আপলোড করা হয়েছে। তবে ইউটিউবের সার্চ বক্সে ‘ফার্স্ট ভিডিও অন ইউটিউব’ লিখে সার্চ দিলেই ইউটিউবের সব থেকে পুরোনো ভিডিওটি বেরিয়ে আসে। 

ভিডিওটি আপলোড করেছিলেন বাংলাদেশি ও জার্মান বংশোদ্ভূত ইউটিউবের সহ প্রতিষ্ঠাতা জাভেদ করিমই। শিরোনাম হলো ‘মি অ্যাট দ্য জু’। ২০০৫ সালের ২৩ এপ্রিল নিজের চ্যানেল থেকে ভিডিওটি আপলোড করেন তিনি। ১৯ বছরে এখন পর্যন্ত ৩২০ মিলিয়ন বার ভিডিওটি দেখা হয়েছে। এখন পর্যন্ত ৪.৬৮ মিলিয়ন সাবস্ক্রাইবার থাকা জাভেদের অফিশিয়াল চ্যানেলটিতে এই একটি ভিডিওই আছে।

ভিডিওটি ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান ডিয়েগো চিড়িয়াখানায় ধারণ করেছিলেন জাভেদ। ১৯ সেকেন্ডের এই ভ্লগ ভিডিওতে তাকে তার পেছনে থাকা দুটি হাতির বর্ণনা দিতে দেখা যায়। ভিডিওতে তিনি বলেন, ‘আমরা এখন হাতির সামনে দাঁড়িয়ে আছি। এখানকার হাতিগুলোর বিশেষত্ব হলো, তাদের শুঁড় অনেক লম্বা, ব্যাপারটা মজার। এটাই বলার ছিল আমার।’ 

ভিডিওটি এখনও প্রতিদিন দেখা হয়, অনেকেরই নানান মজার মজার কমেন্ট (মন্তব্য) আছে।

ভিডিওটির কমেন্ট বক্স ঘুরলেই, ২০২২, ২০২৩ বা ২০২৪ সালে এসেও আমি ভিডিওটি দেখছি, আমার মতো আর কারা আছেন?— এমন ধরনের কমেন্ট চোখে পড়বে আপনার।  

সান ডিয়েগো চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ লিখেছে, ‘আমরা সম্মানিত যে প্রথম ইউটিউব ভিডিও এখানে চিত্রায়িত হয়েছে!’ জাভেদের পিন করা কমেন্টটিতে আবার ৩.৭ মিলিয়ন লাইক পড়েছে। 

বাংলাদেশি বাবা এবং জার্মান মায়ের ঘরে জন্মগ্রহণ করেন জাভেদ। পেশায় সফটওয়্যার প্রকৌশলী জাভেদ স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেছেন স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। তার বাবা নাইমুল করিম একজন গবেষক এবং মা ক্রিস্টিন মিনেসোটা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণরসায়ন বিজ্ঞানী। 

ইউটিউব বিক্রি করে দেওয়ার পর জাভেদ করিম ইউনিভার্সিটি ভেঞ্চারস (ওয়াই ভেঞ্চারস) সহ-প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠানটি এয়ারবিএনবি এবং রেডিটের মতো স্টার্টআপগুলোর বিনিয়োগ ও পরামর্শদাতা হিসেবে কাজ করেছে। 

আজকের সারাদেশ/জেএম