রাত ১২:৪৩, মঙ্গলবার, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জিম্মি দশা থেকে মুক্ত নাবিক তানভীরের জন্য গরুর মাংস ও শিমের বিচি রেঁধেছেন মা

দস্যুদের হাত থেকে মুক্ত হয়ে দেশে ফিরেছেন নাবিক ছেলে। তাই ছেলের পছন্দের সব খাবার রান্না করেছেন এমভি আবদুল্লাহ জাহাজের ফোর্থ ইঞ্জিনিয়ার তানভির আহমদের মা জোছনা বেগম। এর মধ্যে আছে- গরুর মাংস, মুরগি, কই মাছ, শিমের বিচি।

জোছনা বেগম বলেন, আজ খুব আনন্দ লাগছে। যা ভাষায় প্রকাশ করতে পারছি না। আজ ঈদের আনন্দ। যুদ্ধ জয়ের আনন্দ। আল্লাহর কাছে শুকরিয়া।

আগ্রাবাদ সিডিএ ১০ নম্বর থেকে ছেলেকে নিতে আসেন তিনি। সঙ্গে ছিলেন তানভীরের স্ত্রী রাহা।

মা বলেন, সোমালিয়ায় জলদস্যুর কবলে পড়েছিল তখন আতঙ্কে ছিলাম। কষ্টে ছিলাম। কখন কী খবর আসে। এখন ঈদের চেয়ে বেশি আনন্দ। অপেক্ষা করছি কখন ছেলের মা ডাক শুনব।

প্রথম দিন যখন জলদস্যুর কবলে পড়ার
খবরে দেখলাম তখন বিশ্বাস করতে কষ্ট হয়েছিল। ঈদটা গেছে মৃত্যুপুরিতে।

মঙ্গলবার দুপুরে ছেলে ফোন দিয়ে বলেছে, আম্মু জাহান মনিতে উঠেছি। চারটার মধ্যে আসবো।

ছেলেকে আবার জাহাজে পাঠাবেন কিনা জানতে চাইলে বলেন, অবশ্যই পাঠাব। দেশের জন্য ছেলেকে উৎসর্গ করবো।

আজকের সারাদেশ/এমএইচ